রোজিনাও ভুল করতে পারেন: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১০:০৫ পূর্বাহ্ণ, মে ২০, ২০২১ | আপডেট: ১০:০৫:পূর্বাহ্ণ, মে ২০, ২০২১

তবে ‘রোজিনাও ভুল করে থাকতে পারেন’ মন্তব্য করে বিষয়টিকে ‘ইমোশনালি’ না দেখে ‘বাস্তবতার নিরিখে বিচারের’ আহ্বান জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর মিন্টোর রোডের বাসভবনে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) সদস্যরা স্মারকলিপি দিতে গেলে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, তাদের মূল দাবি হচ্ছে- নিরপেক্ষ তদন্ত। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তদন্ত নয়, নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠনের অনুরোধ করেছেন তারা।

“আমি বিষয়টি যথাযথ কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করব।”

রাষ্ট্রীয় গোপন নথি ‘চুরির চেষ্টার’ অভিযোগে প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে সোমবার সচিবালয়ে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের এক কর্মকর্তার কক্ষে প্রায় সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা আটকে রাখা হয়।

পরে রাতে তাকে শাহবাগ থানায় সোপর্দ করে ব্রিটিশ আমলের অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্ট ও দণ্ডিবিধির কয়েকটি ধারায় মামলা করে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ। বুধবার মামলার তদন্তভার পেয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ- ডিবি।

রোজিনা ইসলাম তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। আর তার সহকর্মীরা বলেছেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ‘অনিয়ম-দুর্নীতি’ নিয়ে প্রতিবেদন করায় তাকে ‘হয়রানি’ করা হচ্ছে ব্রিটিশ আমলের এক আইন ব্যবহার করে।

সচিবালয়ে আটকে রাখার সময় রোজিনাকে শারীরিকভাবে হেনস্তা করা হয় বলেও অভিযোগ করেছে তার পরিবার। পুলিশ রোজিনাকে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করলেও মঙ্গলবার ঢাকার একটি আদালত তা খারিজ করে দেয়।রোজিনা ইসলাম যাতে ন্যায়বিচার পান ও কারা হেফাজতে যথাযথ সম্মান পান তা নিশ্চিতে ‘শুরু থেকে চলমান’ প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখারও অঙ্গীকার করেন হাছান মাহমুদ।

সাংবাদিক নেতাদের উদ্দেশ্যে তথ্যমন্ত্রী বলেন, “আপনাদের কাছে আমি বিনীত অনুরোধ জানাই, বিষয়টিকে ইমোশনালি না দেখে বাস্তবতার নিরিখে বিচার করুন।

“আমি, আপনি যেকোনো সময়েই ভুল করতে পারি, মানুষমাত্রই ভুল করে। রোজিনা ইসলামও ভুল করতে পারেন। কেউ ভুলের ঊর্ধ্বে নয় তা মাথায় রাখতে হবে।”

আমি আপনাদের মন্ত্রী আপনাদের মানুষ। সুতরাং আপনাদের দাবিগুলো সহানুভূতির সঙ্গে দেখে যতোটুকু করার সেটুকু করার সর্বাচ্চ প্রচেষ্টা আমার থাকবে।”

এ সময় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মোরসালিন নোমানি, সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান খান, সচিবালয় বিটে কর্মরত সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের (বিএসআরএফ) এর সভাপতি তপন বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।