ভারতে অক্সিজেনের ঘাটতিতে মৃত্যু ‘গণহত্যার চেয়ে কম নয়’: হাইকোর্ট

প্রকাশিত: ৮:২৫ পূর্বাহ্ণ, মে ৫, ২০২১ | আপডেট: ৮:২৫:পূর্বাহ্ণ, মে ৫, ২০২১

০৫ মে ২০২১,

 

ভারতজুড়ে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ আঘাত হেনেছে। সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় অক্সিজেনের সংকট দেখা দিয়েছে। এ কারণে অক্সিজেন না পেয়ে মারা যাচ্ছেন অনেক কোভিড-১৯-এর রোগী। এ নিয়ে কঠোর মন্তব্য করেছেন উত্তর প্রদেশের এলাহাবাদের হাইকোর্ট।

আদালত গতকাল মঙ্গলবার বলেছেন, শুধু অক্সিজেন না পেয়ে হাসপাতালে করোনা রোগীর মৃত্যু একধরনের অপরাধ, যা ‘গণহত্যার চেয়ে কম নয়’। এ হত্যার দায় কর্তৃপক্ষের, যারা অক্সিজেন সরবরাহ ব্যবস্থাপনা করছে।

সম্প্রতি ভারতের উত্তর প্রদেশের রাজ্যের লক্ষ্ণৌ ও মিরাট জেলায় অক্সিজেন না পেয়ে মারা গেছেন কয়েকজন। এ খবর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এরপর এলাহাবাদের হাইকোর্ট এমন মন্তব্য করলেন। এ ছাড়া অক্সিজেনের ঘাটতিতে রোগী মৃত্যুর ঘটনার তদন্তের আদেশ দিয়েছেন আদালত। এলাহাবাদ আদালতের বিচারক সিদ্ধার্থ ভার্মা ও বিচারক অজিত কুমারের বেঞ্চ এ আদেশ দিয়েছেন। করোনার মহামারি শুরুর পর জনস্বার্থ আইনের অধীনে এই আদেশ দিয়েছেন তাঁরা।

এলাহাবাদের হাইকোর্ট বলেন, ‘আমরা কীভাবে আমাদের নাগরিকদের শুধু অক্সিজেনের অভাবে মারা যেতে দিতে পারি, যখন বিজ্ঞান এত এগিয়েছে; এমনকি হৃদ্‌যন্ত্র প্রতিস্থাপন এবং মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের মতো বড় বড় অস্ত্রোপচার হচ্ছে।’

এলাহাবাদের আদালত আরও বলেন, ‘সাধারণত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এমন কোনো সংবাদ নিয়ে আমরা এমন কোনো আদেশ দিই না। কিন্তু আইনজীবীরা যখন এসব খবরের পরিপ্রেক্ষিতে আদালতে আবেদন করেন এবং রাজ্যের অন্যান্য জেলা একই রকম চিত্র তুলে ধরে, তখন এর পরিপ্রেক্ষিতে সরকারকে দ্রুত আদেশ দেওয়ার বিষয়টি জরুরি হয়ে পড়ে।’

অক্সিজেন না পেয়ে মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে লক্ষ্ণৌ ও মিরাটের জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে ৪৮ ঘণ্টা সময় বেঁধে দিয়েছেন এলাহাবাদের হাইকোর্ট। এরপরের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সেই প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এলাহাবাদের হাইকোর্ট যেদিন এই আদেশ দিয়েছেন, সেদিন অর্থাৎ গতকাল মঙ্গলবার ভারতে ৩ লাখ ৮২ হাজার ৩১৫ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, এ দিন মারা গেছেন রেকর্ড ৩ হাজার ৭৮০ জন।

আগের দিন সোমবার ভারতে ৩ লাখ ৫৭ হাজার ২২৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। গত রোববার শনাক্ত হয় ৩ লাখ ৬৯ হাজারের বেশি রোগী। শনিবার শনাক্ত হয় ৩ লাখ ৯২ হাজারের বেশি রোগী। এ পর্যন্ত দেশটিতে এক দিনে সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে গত শুক্রবার, ৪ লাখ ১ হাজার ৯৯৩ জন। এর আগে কোনো দেশে এক দিনে এত রোগী শনাক্ত হয়নি।

সোমবার ভারতে মারা যান ৩ হাজার ৪৪৯ জন। রোববার মারা যান ৩ হাজার ৪৫৫ জন। শনিবার মারা যান ৩ হাজার ৬৮৯ জন।

সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, ভারতে করোনায় সংক্রমিত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৬ লাখ ৬৫ হাজার ১৪৮। মোট প্রাণহানি ২ লাখ ২৬ হাজার ১৮৮ জন।