ভিডিও কনফারেন্সের দেশীয় প্ল্যাটফর্ম বৈঠকের উদ্বোধন

প্রকাশিত: ৮:১৩ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২৬, ২০২১ | আপডেট: ৮:১৩:পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ২৬, ২০২১

২৬ এপ্রিল ২০২১,

 

 

ভিডিও কনফারেন্সের জন্য সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ (আইসিটি) নিজস্ব প্রোগ্রামারদের দিয়ে তৈরি করেছে ‘বৈঠক’ নামের একটি প্ল্যাটফর্ম। জুমের আদলেই করা এ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে তথ্য সুরক্ষার পাশাপাশি অর্থ সাশ্রয় হবে বলে জানিয়েছে আইসিটি বিভাগ।

আজ রোববার বৈঠক প্ল্যাটফর্মের উদ্বোধন করেন পরারাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। বৈঠকেই এ উদ্বোধনী আয়োজন করা হয়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ব্যবহারের জন্য ১০টি ক্রোডেনশিয়াল হস্তান্তর করা হয়।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, বাংলাদেশ যে ডিজিটালি এগিয়ে যাচ্ছে, তার অন্যতম ফল হচ্ছে এই বৈঠক। এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারের মাধ্যমে বিদেশি পণ্য ব্যবহারের ওপর নির্ভরতা কমবে। এখানে তথ্য নিরাপত্তার ক্ষেত্রে যেন আপস করা না হয়, সে আহ্বান জানান তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আইসিটি বিভাগের কাছে জানতে চান, বৈঠক প্ল্যাটফর্ম সহজে ব্যবহার করা যাবে কি না এবং তা কার্যকরী হবে কি না? এর জবাবে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ জানান, জুম প্ল্যাটফর্ম যেভাবে ব্যবহার করা হয়, এটাও ঠিক একইভাবে ব্যবহার করা যাবে। বৈঠকে দেশীয় বা বিদেশি কূটনৈতিক মিটিংও করা যাবে। এটি বেটা ভার্সন। ব্যবহার করার পর মতামতের ওপর সহজীকরণ চলতে থাকবে।

বিজ্ঞাপন

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনার প্রেক্ষাপটে তথ্যপ্রযুক্তির প্রয়োজনীয়তা আরও বেশি উপলব্ধি করা গেছে। বিদেশি প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার নিরাপদ নয়। সেখানে তথ্যের গোপনীয়তা ভঙ্গ হওয়ার সুযোগ থাকে। কিন্তু বৈঠকের তথ্য ন্যাশনাল ডেটা সেন্টারে থাকবে। তথ্যের সুরক্ষা দেবে। আইসিটি বিভাগের ১০ জন প্রোগ্রামার এটা তৈরি করেছেন। এর জন্য কোনো টাকা খরচ করতে হয়নি। বিদেশি প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারে যে পরিমাণ অর্থ খরচ করতে হয়, সে তুলনায় এটা সাশ্রয়ী হবে।

বৈঠক প্ল্যাটফর্মটি এখন পরীক্ষামূলকভাবে চলবে জানিয়ে জুনাইদ আহমেদ বলেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ব্যবহারের অভিজ্ঞতার ওপর এর উন্নয়নে আরও কাজ হবে। পরবর্তী সময়ে সরকারের অন্যান্য দপ্তর এবং জনসাধারণের ব্যবহারের জন্য দেওয়া হবে।

আইসিটি মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলমের সভাপতিত্বে ও কম্পিউটার ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিমের (সার্ট) প্রকল্প পরিচালক তারেক এম বরকতউল্লাহর সঞ্চালনায় পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন ও বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক পার্থ প্রতীম দেব এতে উপস্থিত ছিলেন।